বই লাভার'স পোলাপান (Boi lover's polapan) discussion

Kresley Cole
This topic is about Kresley Cole
10 views
বই আলোচনা (Book Reviews) > The Arcana Chronicles trilogy series by Kresley Cole

Comments Showing 1-4 of 4 (4 new)    post a comment »
dateDown arrow    newest »

message 1: by Bookish (last edited Jan 22, 2015 07:27AM) (new)

Bookish (moon513) | 347 comments Mod
The Arcana Chronicles trilogy series by Kresley Cole
Poison Princess (The Arcana Chronicles, #1) by Kresley Cole Endless Knight (The Arcana Chronicles, #2) by Kresley Cole Dead of Winter (The Arcana Chronicles, #3) by Kresley Cole

My review for Poison Princess - Review on January 2015
My review for Endless Knight - Coming Soon...
My review for Dead of Winter - Coming Soon...

Review links of other members will be listed below -
>>>


message 2: by Auyon (new)

Auyon Islam (engrauyon) | 95 comments মজা পেলাম রিভিউ পড়ে। বইটা পড়ার আগ্রহ জন্মালো। ধন্যবাদ।


message 3: by Bookish (new)

Bookish (moon513) | 347 comments Mod
Thanks Auyon bhai :)


message 4: by Bookish (last edited Jan 22, 2015 08:34AM) (new)

Bookish (moon513) | 347 comments Mod
Poison Princess (The Arcana Chronicles, #1) by Kresley Cole

আমার রেটিং: 4 stars [I really liked it]

কাহিনী সংক্ষেপঃ
১৬ বছরের ইভেঞ্জেলিন গ্রিন (সংক্ষেপে ইভি) ভেবেছিল পৃথিবীর অন্তিম বিপর্যয় নিয়ে ওর যেসব ভয়ংকর দৃষ্টিভ্রম হচ্ছে তা হলো মানসিক অসুস্থতার লক্ষণ। আর ভাববেই না কেন যখন এটা বংশগত অসুখ বুঝিয়ে ওর মা এবং ওর সাইক্রিয়াটিস্টরা সবাই মিলে ওকে পাঠিয়ে দিল “চিলড্রেন বিহেভিওর ক্লিনিক” যাকে অন্য নামেও বলা হয় “চাইল্ডস লাস্ট চ্যান্স”, যেখানে ও কাটিয়েছে একটি নিঃসঙ্গ সামার বাইরের পুরো দুনিয়ে থেকে বিচ্ছিন্ন অবস্থায়। বংশগত অসুখকে ওরা ব্যাখ্যা করেছে ওর কাছে এভাবে - ওর নানী ওকে সেই ছোট বয়স থেকে উদ্ভট আজুগুবি সব কাহিনী গল্প বলতেন সেসব নাকি ও মনের অজান্তে বিশ্বাস করে বলে এসব দৃষ্টিভ্রম হচ্ছে ওর। একসময় ওর নানী ওকে সাথে নিয়ে একটি গাড়িতে করে দূরে কোথাও পালিয়েও যেতে চেয়েছিলেন, কিন্তু পুলিশের হাতে ধরা পড়েন। ইভির কাছে দাদীর সেই গল্প গুলো এখন অনেক অস্পষ্ট। সময়ের সাথে হাড়িয়ে গেছে ওইসব স্মৃতি। এমনকি ওর মা যেই কিডন্যাপিং এর ঘটনার জন্য নানীকে ওদের থেকে অনেক দূরে পাঠিয়ে দিলেন এবং আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী নানী আর কখনই ওর সাথে যোগাযোগ করতে পারেননি, সেই ঘটনাই ও পুরোপুরি মনে করতে পারেনা আর। নানী যখন ওকে আইসক্রিম এর কথা বলে গাড়িতে করে বেড়াতে নিয়ে যাচ্ছিলেন ও পুরো রাস্তায় সেই আইসক্রিম এর স্বপ্নে বিভোর ছিল, নানী ওকে কি কাহিনী গল্প শুনাচ্ছেন সেসব বুঝছিলোনা তাই মনোযোগ দিয়ে শোনার আগ্রহ ও ছিলনা। ক্লিনিক থেকে অবশেষে যখন ও ছাড়া পেল ওর মা এবং সাইক্রিয়াটিস্টদের কে এটা বুঝিয়ে ও ওর নানীর কথা মোটেই আর বিশ্বাস করেন, ওর সামনে ২টি লক্ষ্যই ছিল – ওর স্বাভাবিক কিশোরী জীবন ফিরে পাওয়া এবং কিছুতেই সেই ক্লিনিকে ফিরে যেতে হয় এমন কিছুকে ঘটতে না দেয়া।

কিন্তু বিধিবাম! ওর দৃষ্টিভ্রম এবং দুঃস্বপ্নগুলো আবারো ফিরে আসে, প্রেস্ক্রাইবড ঔষধ ক্লিনিকে থাকতে এবং বাড়িতে ফিরে আসার পর খেয়েও। স্কুলে ফেরার ১ সপ্তাহের মধ্যে যেই স্বাভাবিক দুনিয়াতে নিজেকে মানিয়ে নিতে চাইছিল তার সবকিছুই ওলটপালট হয়ে যায়, আরো সঠিকভাবে বলতে গেলে পরিচিত দুনিয়াটিকে ধ্বংস হয়ে যেতে দেখে যার মধ্য দিয়ে ওর স্বপ্ন গুলো সত্যি হওয়ার প্রমাণ পায়। নিজের দুঃস্বপ্ন এবং দৃষ্টিভ্রমগুলোকে বিশ্বাস করা ছাড়া ইভির সামনে আর কোন উপায় থাকেনা। ওর পরিচিত মানুষদের মধ্যে জীবিত থাকে খুব অল্প মানুষই, তার মধ্যে একজন হচ্ছে ওর সহপাঠী জেকসন ডিভক্স। জেক হচ্ছে একজন কাজুন (Cajun - ইউএসএ এর লুসিয়ানা স্টেট এ বসবাসকারী এথনিক গ্রুপ) এবং ও এসেছে এক দরিদ্র পরিবার থেকে। ওর সম্প্রদায় সম্পর্কে ইভিদের শহরে ভালো ধারনা ছিলনা। তার উপর জেক হচ্ছে যাকে বলে ১৮ বছর বয়সী বিগড়ে যাওয়া যুবক, যার সম্পর্কে গুজব আছে ও জুভি (Juvie - ইউএসএ চিল্ড্রেন্স প্রিজন) তে শাস্তিপ্রাপ্ত। স্কুলে ইভি এবং জেকের মধ্যে বন্ধুসুলভ সম্পর্ক না থাকলেও জেকের সাহায্য নেয়া ছাড়া ইভির সামনে কোন উপায় থাকেনা বিপর্যয় পরবর্তী পৃথিবীর প্রতিকুল পরিবেশে টিকে থেকে ওর ভবিষ্যৎ দর্শন এবং স্বপ্নের সত্যতা এবং রহস্য উদ্ঘাটন করতে চাইলে। ইভির দৃঢ় বিশ্বাস ওর নানীর কাছেই থাকবে সব রহস্যের চাবিকাঠি। জেক কে নিয়ে নর্থ-ক্যারোলিনা এর দিকে রওনা দেয় যেখানে ওর নানী থাকা শুরু করেছিলেন আদালত তাকে লুসিয়ানা স্টেট থেকে বিতাড়িত করার পর। পথে দেখা পায় আরো কিছু তরুণ-তরুণীর যারা ওর মতই এই বিপর্যয় সম্পর্কে অগ্রিম সংকেত পেয়েছে এবং তাদের নিজেদের নির্দিষ্ট এবং বিশেষ কিছু অলৈকিক শক্তি ও আছে। একটি অতি প্রাচীন ভবিষ্যৎবানী সত্যি হতে চলেছে, এর মধ্যেই ভালো এবং মন্দের মাঝে যুদ্ধ তীব্র হয়ে ওঠে, তারমাঝে এটা বোঝা কঠিন কে আসলে কোন পক্ষে।

(view spoiler)

আমার মতামতঃ
এপোক্যালিপ্স নিয়ে পড়া এটা আমার প্রথম বই। তাই এসব বই নিয়ে কি ধরনের গল্প প্রত্যাশা করা যায় এ নিয়ে কোন ধারনা ছিলনা। ফ্যান্টাসির সাথে সায়েন্স-ফিকশনের কিছু সংমিশ্রণ থাকবে ভেবেছিলাম। এপোক্যালিপ্স কে এতদিন এড়িয়ে চলেছিলাম গল্প অনেক বিষণ্ণ হবে ভেবে, আই মিন পৃথিবী ধ্বংস হয়ে যাওয়া নিয়ে গল্প বিষণ্ণ হবে এটাই যৌক্তিক। প্রথম ধারনা ভুল প্রমানিত হলেও দ্বিতীয় ধারনা সত্যি হয়েছে।

১৯৫২ বইয়ের রিভিউ তে একটা কথা বলেছিলাম, রহস্য কাহিনীর বেসিক প্লট ২ প্রকারের হয়। ১৯৫২ ২য় ধরণের হলেও Poison Princess ১ম ধরণের রহস্যের মধ্যে পড়ে। বইটির শেষ পর্যন্ত না পড়ে ইভির ভবিষ্যৎ দর্শন এবং স্বপ্ন নিয়ে প্রশ্নের উত্তর পাওয়া যায়না। যতটুকু উত্তর পাবেন সেটা শুধুই আপনার আগ্রহ বাড়িয়ে দিবে সিরিজের বাকি বইগুলো পড়তে। অতি চালাক পাঠকরা আবার ভেবে বসবেননা বইয়ের শেষটুকু পড়লেই তাহলে হবে। শুধু শেষটুকু পড়ে আপনি সেই তিমিরেই থেকে যাবেন কেননা সেখানে শুধু কিছু প্রশ্নের উত্তর পাবেন, প্রশ্নগুলো কি ছিলো, কেন ছিলো তার কোন ধারনা পাবেননা।

গল্পের শুরুটি বেশ ইন্টারেস্টিং স্টাইলে শুরু করেছিলেন লেখক। আমার মতে উনি বেশ চাতুরীর পরিচয় দিয়েছেন এতে। ইভির সাথে শেষ পর্যন্ত কি হয় এটা না জানা পর্যন্ত রহস্যপিপাসু পাঠকের মন শান্তই হবেনা এটা আমি নির্দ্বিধায় বলে দিতে পারি। বইটির পাতা উলটে যাবেন আর নতুন সব ঘটনার সাথে আপনার মনের কৌতূহল শুধু বেড়ে যাবে। প্রশ্নের উত্তর যখনই পাবেন মনে হবে তার পরক্ষণেই দেখবেন প্রশ্নের উত্তর তো পেলেন না বরং আপনার মনে আরো নতুন প্রশ্নের জন্ম হয়েছে! এতে সেইরকম লেভেলের ফ্রাস্টেশন তৈরি হবে কিন্তু এধরনের ফ্রাস্টেশনেও আমি একধরণের মজা পাই, কারণ রহস্য বেড়ে যত বড় হয়ে একসময় সব খোলাসা হয় সেটা জানার যেই তৃপ্তি সেটা শুধু এরকম রহস্যোপন্যাস এই পাওয়া যায়। আমি লেখকের গল্পের বর্ণনাতে মাঝে মাঝে এমনই ডুবে গিয়েছিলাম যে মাঝে মাঝে ভুলেই যেতাম গল্পের শুরু অংশের কথা, যদিনা লেখক গল্পের বিরতিতে মাঝে মাঝেই সেটার একটা উল্লেখ না করতেন। ইভির চরিত্র কে লেখক যেভাবে গড়ে তুলেছেন আমার কাছে সেটা বিশ্বাসযোগ্য মনে হয়েছে। ইভি তার স্কুলে জনপ্রিয় ছিল শুধু এই কারনেই নয় কারণ সে একটি ধনী পরিবারের সন্তান এবং সুন্দরী স্মার্ট চিয়ারলিডার বলে। সবার সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ ব্যবহারের জন্য তাকে সবাই পছন্দ করত। নিজের ভবিষ্যৎ দর্শন এবং স্বপ্ন নিয়ে ১৬ বছরের এক কিশোরীর মধ্যে যেই ভয়, দ্বিধা, আতংক ইত্যাদি অনুভূতি কাজ করবে তা লেখক খুব সুন্দর করে ফুটিয়ে তুলেছেন। এপোক্যালিপ্স-র পর কোন সঠিক নির্দেশনা ছাড়া একটি কিশোরী মেয়ে যেভাবে প্রতিকিয়া দেখাবে তা স্পট অন কারণ পাঠক হিসেবে আপনি যেরকম ধাঁধার মধ্যে, সেরকম অবস্থা ইভির নিজেরও। প্রতিকুল পরিবেশে ইভির মত একটি মেয়ে টিকে থাকতে যে সংগ্রামের মধ্যে দিয়ে যেতে পারে সেটার বর্ণনায় আমি কোন খুঁত পাইনি।

তবে স্বীকার করতেই হবে গল্পটা ত্রুটিবিহীন নয়। এবং কিছু কিছু ত্রুটি আছে যা হয়তো কিছু পাঠককে বিরক্তিতে ফেলে দিতে পারে যার কারনে হয়তো অনেকে বইটি মাঝপথেই পড়া থামিয়ে দিবেন এই আশংকা রয়েই যায়। গল্পের প্রথম অংশটুকু তে ইভির স্কুল এবং ওর ফ্রেন্ডদের বর্ণনা আছে যা গল্পের সুচনার জন্য হয়তো প্রয়োজনীয় কিন্তু আমার কাছে একে পুরোই হাই স্কুল সোপ অপেরার মতো লেগেছে। লেখক এপোক্যালিপ্স এর পরের পরিস্থিতি নিয়ে একটি পরিপূর্ণ ফ্যান্টাসি ওয়ার্ল্ড গড়তে পারেননি গল্পের মধ্য দিয়ে। বেশি কিছু জিনিসের ব্যাখ্যা পাওয়া যায়না যে এপোক্যালিপ্স এর প্রভাবে এমন কেন হলো অথবা হলোনা। একসময় আমি নিজেও খুব কনফিউশনে ভুগেছি যেটা কাহিনী উপভোগ করতে একটি বাধাতো বটেই। যদিও পরে বুঝতে পারি লেখক সম্ভবত সিরিজের বাকি বইগুলোর প্রতি ইন্টারেস্ট ধরে রাখতে এমনটি করেছেন। ইভি এবং জেক এর মধ্যে যেই রোমান্টিক ইন্টারেস্ট, সেটা যেভাবে তৈরি করা হয়েছে সেটা আরো ভালো হতে পারতো। টিন এজ প্রেমের ড্রামার প্রতি আমার ধৈর্য এমনিতেই কম। পরবর্তী বইগুলোতে জেকের ভুমিকা কি হয় এর উপর নির্ভর করছে ওদের সম্পর্কের পরিণতি।

তবুও বলবো (view spoiler) তাই পুরো সিরিজ যে আমি অবশ্যই শেষ করবো পড়া এতে কোন সন্দেহ নেই।

এই বই পড়ার মাঝে এপোক্যালিপ্স বই এর বিষণ্ণতা নিয়ে অভিযোগ করাতে কিছু ফ্রেন্ডের কাছে ২টি সিরিজের রেকোমেন্ডেশন পেয়েছি যা ওদের মতে আমাকে সেরকম বিষণ্ণ করবেনা, অন্তত এদের সমাপ্তি নিয়ে কোন অভিযোগ থাকবেনা। বই ২টি হল - Angelfall এবং Cinder


back to top

153408

বই লাভার'স পোলাপান (Boi lover's polapan)

unread topics | mark unread


Books mentioned in this topic

Cinder (other topics)
Angelfall (other topics)
Poison Princess (other topics)
Endless Knight (other topics)
Dead of Winter (other topics)

Authors mentioned in this topic

Kresley Cole (other topics)